WELCOME TO Joypur Sorojini High School.

১৯১৭ সালে জুনিয়র স্কুল হিসেবে শুরু হয় জয়পুর সরোজিনী এ স্কুলটির পথচলা। ২০১৬ সালে শতবর্ষ পূর্ণ করে। বর্তমানে জয়পুর সরোজিনী হাই স্কুল নামে পরিচিতি লাভ করে।

১৯১৭ সালে জুনিয়র স্কুল হিসেবে শুরু হয় জয়পুর সরোজিনী এ স্কুলটির পথচলা। ২০১৬ সালে শতবর্ষ পূর্ণ করে। বর্তমানে জয়পুর সরোজিনী হাই স্কুল নামে পরিচিতি লাভ করে।

 ফেনী জেলা ও চট্টগ্রাম জেলার সীমান্তে ৯নং শুভপুর ইউনিয়নের মহারাজগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এই প্রতিষ্ঠানটি ৩.৩৮ একর জমি জুড়ে অবস্থিত । অত্র স্কুলের প্রাণপুরুষ বলে পরিচিত দীর্ঘ ৪০বৎসর ধরে যিনি প্রতিষ্ঠানটিকে নিজ সন্তানের মতো আগলে রেখেছেন, সেই প্রধানশিক্ষক জনাব আজিজুল হক ভূঁঞার হাতের ছোঁয়ায় আর অন্তরের দোয়ায় আজ সারাদেশে অসংখ্য শিক্ষার্থী স্ব স্ব ক্ষেত্রে স্বনামধন্য আসনে আসীন। রয়েছেন দীর্ঘ শতবর্ষী প্রাচীন এই প্রতিষ্ঠানের গুণমুগ্ধ শিক্ষার্থীরা। যাদের পরিচয়ে আজ আমরা গর্বিত।
 বর্তমান প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ ওমর ফারুক সহ ১৩ জন শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন। বর্তমানে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ৫টি ক্লাসে মোট ১০টি শাখা রয়েছে।
বিদ্যালয়ের প্রাত্যহিক কার্যক্রম সকাল ১০টায় এসেম্বলির মাধ্যমে শুরু হয় এবং বিকাল ৪টায় শেষ হয়।
তবে বিদ্যালয়ের সুযোগ্য প্রধান শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে সম্মানিত শিক্ষকমণ্ডলী নিয়মিত শ্রেণি কার্যক্রমের বাইরে প্রয়োজনে আরও অতিরিক্ত সময়ও অনেকে কর্মরত থাকেন যা তাদের পাঠদান কার্যক্রমকে আরও সুনিবিড়ভাবে সম্পাদন করতে সাহায্য করে। বিদ্যালয়ের সুবিশাল দ্বিতল একাডেমিক ভবনে রয়েছে। নতুন একটি ভবন নির্মানাধীন।

 সুবিশাল খেলার মাঠটি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত খেলাধূলা, প্রাত্যহিক এসেম্বলি,সহ-পাঠ্যক্রমিক কার্যক্রম অনুশীলন সহ নানা সমাজসেবা মূলক কাজে ব্যবহৃত হয়।
প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিদ্যালয়ের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ফলাফলের এক সোনালী অতীত। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত,অভিজ্ঞ প্রধান
শিক্ষক সহ উচ্চ শিক্ষিত ও নিবেদিত শিক্ষকমণ্ডলী আদর্শ ও দেশপ্রেমিক নাগরিক তৈরিতে প্রত্যয়দীপ্ত হয়ে পাঠদান করেছেন যা কালের পরিক্রমায় আজও গতিশীল।
অধুনাকালে শিক্ষকগণ ডিজিটাল কন্টেন্টে ক্লাস প্রেজেন্টেশন করে শিক্ষার্থীদেরকে পাঠে অধিকতর মনযোগী করতে সক্ষম হয়েছেন। এখানে স্কাউট এর কার্যক্রম সফল ভাবে চালু রয়েছে। 

বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবসসমূহ পালন, শিক্ষা সফরসহ সকল সহ-পাঠ্যক্রমিক কার্যক্রমে শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তাদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশের প্রয়াস পাচ্ছে। যার অংশ হিসেবে প্রতি বছর জ়ে এস সি ও এস এস সি,পরীক্ষায় ঈর্ষনীয় ফলাফল অর্জন করছে।



Mission and Vision.

একজন ছাত্রকে লেখাপড়া শিখিয়ে জ্ঞানদানের মাধ্যমে শারীরিক ও মানসিকভাবে পূর্ণাঙ্গ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা, যাতে সে আচরণের শুভ পরিবর্তন ঘটিয়ে সমাজে সুস্থ-সবল, সুন্দর সভ্য সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারে। দীর্ঘদিনের গৌরবময় ঐতিহ্য ধরে রাখার প্রয়াসে আধুনিক প্রযুক্তি বিপ্লব ও ভিশন-২০২১ এর লক্ষ্য উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে শ্রেণিকক্ষগুলোকে আধুনিক প্রযুক্তির সাথে যুক্ত করে শিক্ষার্থীকে দেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে এবং যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত করে তোলাই আমাদের অন্যতম লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।